নার্সিং পড়ার যোগ্যতা ও পরিক্ষার মানবন্টন। বিএসসি ইন নার্ন্সিং পড়ার যোগ্যতা

পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

5/5 - (1 vote)

নার্সিং পড়ার যোগ্যতা – বর্তমানে দেশে সবথেকে চাহিদা যুক্ত একটি পেশার নাম হলো নার্স। জেনারেল লাইনে পড়ার চেয়ে নার্সিং পড়া দ্রুত ক্যারিয়ার গঠনের জন্য সবচেয়ে বেশি উপযুক্ত। তবে আপনি চাইলেই নার্সিং পড়তে পারবেন না। নার্সিং পড়ার জন্য আপনাকে যোগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে। বাংলাদেশে নার্সিং পড়ার জন্য কিছু রিকোয়্যারমেন্ট রয়েছে। যেগুলো পূর্ণ করতে পারলে আপনিও নার্স হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার দাড় করাতে পারবেন।

অনেকের স্বপ্ন থাকে নার্সিং কে ক্যারিয়ার হিসেবে নেয়ার। তবে অনেকের ক্ষেত্রে সরকারি নার্সিং কলেজে চান্স হয় না। যদি বেসরকারি থেকে নার্সিং পড়তে হয় তবে খরচ কেমন হতে পারে? এসব প্রশ্নের উত্তর জানাবো আমাদের আজকের আর্টিকেলে। যদি আপনি নার্সিং সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পেতে চান তাহলে আর্টিকেল শেষ পর্যন্ত পড়ার চেষ্টা করুন।

নার্সিং পড়ার যোগ্যতা

নার্সিং পড়ার জন্য স্বাস্থ্য এর পাশাপাশি শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে। আপনাকে অবশ্যই অবিবাহিত ও সুসাস্থ্যের অধিকারি হতে হবে। সাধারণত শিক্ষা ক্ষেত্রে সর্বনীম্ন আপনাকে এইচএসসি পাস করতে হবে। নির্ধারিত পয়েন্ট যদি থাকে তাহলে ভর্তি পরিক্ষায় আবেদন করতে হবে। BNMC এর করা নিয়ম অনুযায়ী ১০০ নাম্বারের MCQ পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৩০ নাম্বার এর উপরে পেতে হবে।

মূলত এখানে পাস নাম্বার হলো ৩০। যদি আপনি ৩০ নাম্বার এর কম নাম্বার পান সেক্ষেত্রে কোনো বেসরকারী প্রতিষ্ঠান থেকেও নার্সিং পড়তে পারবেন না। নিচে আমরা নার্সিং পড়ার যোগ্যতা বিস্তারিত তুলে ধরলাম –

বিএসসি ইন নার্ন্সিং পড়ার যোগ্যতা

নার্সিং পড়ার যোগ্যতা, নার্সিং ভর্তি পরিক্ষার মানবন্টন, বিএসসি ইন নার্ন্সিং পড়ার যোগ্যতা,

যদি আপনি বিএসসি ইন নার্সিং পড়তে চান তাহলে নিম্নোক্ত যোগ্যতা গুলো থাকতে হবে সেগুলো হলো –

  • বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান দুটো মিলিয়ে গ্রেড পয়েন্ট ৭.০০ সর্বনীম্ন থাকতে হবে তবে কোনো পরিক্ষায় ৩.০০ এর কম পেলে হবে না। অর্থ্যাত আপনাকে এসএসসি ও এইচএসসি দুটো বিভাগে ৩.০০ এর উপরে গ্রেড পয়েন্ট থাকতে হবে।
  • বিএসসি ইন নার্সিং এর ক্ষেত্রে নারী ও পুরুষ আবেদন করতে পারবেন।
  • সরকারি কলেজের ক্ষেত্রে নারীদের জন্য ৮০% ও পুরুষের জন্য ১০%। বেসরকারি কলেজের ক্ষেত্রে নারী ৮০% ও পুরুষ ২০% ভর্তি হতে পারবেন।

ডিপ্লোমা নার্সিং পড়ার যোগ্যতা

ডিপ্লোমা নার্সিং পড়ার জন্য যেসব যোগ্যতা থাকতে হবে সেগুলো হলো –

  • যে কোনো বিভাগ থেকে এসএসসি ও সমমান পরিক্ষায় মোট গ্রেড পয়েন্ট ৬.০০ থাকতে হবে। তবে কোনো বিভাগে গ্রেড পয়েন্ট ২.৫০ এর কম থাকা যাবে না।
  • ডিপ্লোমা নার্সিং এর ক্ষেত্রে পুরুষ ও মহিলা উভয়ে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন।
  • সরকারি কলেজে নারী ৯০% পুরুষ ২০% বেসরকারি কলেজে ভর্তি হতে পারবে।

ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি নার্সিং পড়ার যোগ্যতা

  • এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরিক্ষায় দুটো মিলিয়ে সর্বমোট পয়েন্ট ৬.০০ থাকতে হবে তবে কোনো একটি বিভাগে ২.৫০ এর কম থাকা যাবে না।
  • শুধু মাত্র নারীরা ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি নার্সিং এর ক্ষেত্রে আবেদন করতে পারবে।

নার্সিং পড়ার জন্য অন্যান্য শর্তাবলী

নার্সিং পড়ার জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা ছাড়াও বেশ কিছু শর্ত পালণ করতে হবে যেগুলো হলো –

  • শিক্ষার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • অবিবাহিত ও ভালো স্বাস্থ্যের অধিকারি হতে হবে তবে ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি এর জন্য বিবাহিত হলেও সমস্যা নেই।
  • শিক্ষার্থি কোন প্রতিষ্ঠানে পড়ার সুযোগ পাবে এটা নির্ভর করবে ভর্তি পরিক্ষার প্রাপ্ত নম্বর ও পছন্দের কলেজের তালিকা অনুযায়ী।

এ ছাড়াও ভর্তি আবেদন এর ক্ষেত্রে বেশ কিছু নিয়ম ও আবেদন ফি দেয়ার পদ্ধতি গুলো বিজ্ঞপ্তি তে বিস্তারিত ভাবে উল্লেখ্য করা থাকবে।

নার্সিং ভর্তি পরিক্ষার মানবন্টন

নার্সিং পড়ার যোগ্যতা, নার্সিং ভর্তি পরিক্ষার মানবন্টন, বিএসসি ইন নার্ন্সিং পড়ার যোগ্যতা,

নার্সিং ভর্তি পরিক্ষা সাধারণত কয়েকটি বিষয়ের মোট ১০০ নাম্বারের উপরে হয়। বিষয় অনুযায়ী মানবন্টন নিচে দিয়ে দিলাম –

বিএসসি নার্সিং পরিক্ষার মানবন্টন

ইংরেজি ২০ মার্ক
বাংলা ২০ মার্ক
সাধারণ জ্ঞান ২০ মার্ক
বিজ্ঞান ৩০ মার্ক
সাধারণ গনিত ১০ মার্ক

ডিপ্লোমা ও মিডওয়াইফারি নার্সিং ভর্তি পরিক্ষার মানবন্টন

ইংরেজি ২০ মার্ক
বাংলা  ২০ মার্ক
সাধারণ জ্ঞান ২৫ মার্ক
সাধারণ বিজ্ঞান ২৫ মার্ক
সাধারণ গনিত ১০ মার্ক

 

নার্সিং পড়ার খরচ কত

নার্সিং পড়ার অনেক ইচ্ছা যাদের থাকে বা সামনে যারা ভর্তি হবেন তারা নার্সিং পড়ার খরচ সম্পর্কে জানতে চান। নার্সিং যেহেতু সরকারি ও বেসরকারি দুই ভাবেই পড়া যায় তাই আমরা এখানে সরকারি ও বেসরকারি ভাবে নার্সিং পড়তে কত টাকা খরচ হবে সেটা সম্পর্কে লিখে দিলাম –

১) সরকারি নার্সিং পড়ার খরচ

সরকারি নার্সিং এ চান্স পাওয়ার জন্য আপনাকে ভর্তি পরিক্ষায় ভালো নাম্বার পেয়ে পাস করতে হবে তবেই আপনি সরকারি কলেজ থেকে নার্সিং পড়তে পারবেন। সরকারি নার্সিং কলেজে মাসিক বেতন বা সিট ফি দিতে হয় না তাই সরকারি কলেজে খরচের পরিমান তুলনামূলক অনেক কম। নিচে সরকারি নার্সিং এর খরচ তুলে ধরলাম –

ভর্তির খরচঃ সরকারি কলেজে ভর্তি হতে যদি বিএসসি নার্সিং ভর্তি হতে চান তাহলে খরচের পরিমান ৩ হাজার থেকে চার হাজার টাকার মধ্যে। এবং মিডিওয়াইফারি তে ভর্তি হওয়ার জন্য খরচ হবে আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার টাকা।

খাবার খরচঃ খাবার বাবদ খরচ হবে ১ হাজার থেকে ২ হাজার টাকা।

লাইব্রেরী ফিঃ লাইব্রেরি ফি হলো ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকার মধ্যে।

২) বেসরকারি কলেজে নার্সিং পড়ার খরচ

সরকারি কলেজের চেয়ে বেসরকারি নার্সিং কলেজে খরচের পরিমান অনেক বেশি হবে। তবে যদি আপনার সরকারি তে কোথাও চান্স না হয় তাহলে বেসরকারি কলেজে ভর্তি হতে পারেন। বেসরকারি কলেজে খরচের পরিমান নির্ভর করে কলেজের রিকোয়্যারমেন্ট অনুযায়ী তবে নিচে আমরা আনুমানিক একটা খরচ এর তালিকা দিয়ে দিলাম –

ভর্তির ফিঃ ভর্তি ফি বেসরকারি কলেজে ৩০ হাজার থেকে শুরু করে ৬০ হাজার টাকার মধ্যে। তবে কলেজ ভেদে আলাদা আলাদা হতে পারে। যে কলেজে ভর্তি হবেন সেখানে আগেই জেনে নিবেন ভর্তি ফি সম্পর্কে।

খাবার খরচঃ খাবার খরচ ২ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকার মধ্যে।

মাসিক বেতনঃ বেসরকারি কলেজে মাসিক বেতন দিতে হয় সাধারণত ৪-৫ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

সিট ভাড়াঃ ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকা।

লাইব্রেরী ফিঃ ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা।

কলেজ ফিঃ ৫০ হাজার বা তারো বেশি।

ছেলেদের নার্সিং পড়ার যোগ্যতা

ছেলেদের নার্সিং পড়ার যোগ্যতার ক্ষেত্রে একাডেমিক ও ভর্তি পরিক্ষায় মোট পাস নাম্বারের বেশি পেতে হবে। তবে সরকারি কলেজের ক্ষেত্রে সিট সংখ্যা মাত্র ১০% আছে। তবে যদি বেসরকারি কলেজে ভর্তি হতে চান তবে সেখানে ২০% সুযোগ দিয়ে থাকে শুধু মাত্র ডিপ্লোমা নার্সিং এর ক্ষেত্রে।

📌 আরো পড়ুন 👇

তবে যদি পাস মার্ক ৩০ এর কম থাকে তাহলে কোনো ভাবেই বেসরকারি কলেজেও ভর্তি হতে পারবে না। এ ছাড়াও এসএসসি ও এইচএসসি ও সমমান পরিক্ষায় মোট গ্রেড পয়েন্ট ৬.০০ থাকতে হবে। শুধু মাত্র ডিপ্লোমা নার্সিং এর ক্ষেত্রে বিজ্ঞান বিভাগ বাধ্যতামূলক নয়।

নার্সিং বিজ্ঞপ্তি কোথায় পাবেন

নার্সিং এর ভর্তি বিজ্ঞপ্তি গুলো তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন। যদি আপনি অফিসিয়াল সাইটের লিংক না জেনে থাকেন তাহলে এখান থেকে দেখে নিন –

নার্সিং পড়া সম্পর্কে আমাদের মতামত 

নার্সিং পড়ার যোগ্যতা আর্টিকেলে আমরা নার্সিং ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের অনেক কিছুই জানাতে সক্ষম হলাম। নার্সিং অনেক সম্মানজনক একটি পেশা। মানুষের সেবা তে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চাইলে হতে পারেন নার্স। বাংলাদেশে দিন দিন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি চাহিদা তৈরি হচ্ছে নার্স দের। 

নার্সিং পড়া সম্পর্কে যদি প্রশ্ন থেকে থাকে, তাহলে কমেন্ট করুন। আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো। এতক্ষন ডিয়ার টেক ব্লগের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Comment