মোবাইল ফাস্ট করার উপায়। মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি

পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

4.5/5 - (2 votes)

আপনার হাতের মোবাইল ফোনটি স্লো হয়ে গেছে? মোবাইল ফাস্ট করার উপায় জানেন না? তাহলে আজকের এই পোস্টটি আপনার জন্যই। কীভাবে স্মার্টফোন ফাস্ট করতে হয় এই বিষয়টি নিয়ে আজকের এই ব্লগে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

আমাদের প্রত্যেকের কাছেই একটি স্মার্টফোন আছে। আপনিও নিশ্চয়ই একটি স্মার্টফোন দিয়েই আমার এই লেখাটি পড়ছেন। অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসের মতো আমাদের হাতের মোবাইল ফোনটিও অনেক সময় স্লো হয়ে যায়। মোবাইল ফোন স্লো হয়ে গেলে অনেকেই মোবাইল ফাস্ট করার উপায় জানেন না। তাই আজকের এই পোস্টে মোবাইল হ্যাং করা থেকে বাঁচার উপায় এবং মোবাইল ফাস্ট করার উপায় নিয়ে আলোচনা করবো।

তো চলুন, স্মার্টফোন ফাস্ট করার উপায় এবং কীভাবে স্মার্টফোনকে পূর্বের তুলনায় ল্যাগ ফ্রি এবং অনেক ফাস্ট করা যায় এসব বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি 

মোবাইল ফাস্ট করার উপায়, মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি,

মোবাইল ফোনে অতিরিক্ত অ্যাপলিকেশন ইনস্টল করার কারণে, অপ্রয়োজনীয় ফাইল রাখার কারণে, বিভিন্ন অ্যাপ এর ক্যাশ ফাইল জমা হওয়ার কারণে অনেক সময় মোবাইল ফোন স্লো হয়ে যায়। মোবাইল স্লো হওয়ার পিছনে আরও অনেক কারণ আছে। যেমন – অনেকদিন যদি মোবাইল ফোনের অ্যাপলিকেশনগুলো এবং সফটওয়্যার আপডেট না দেয়া হয়, তাহলেও মোবাইল স্লো হয়।

প্রয়োজন নেই এমন অনেক অ্যাপ আমরা ইনস্টল করে রেখে দেই। যা আমাদের মোবাইলের স্টোরেজ এবং র‍্যাম দখল করে থাকে। এছাড়া, বিভিন্ন অ্যাপ এর ক্যাশ ফাইল ক্লিন না করার কারণেও এগুলো আমাদের ফোনে স্টোরেজ দখল করে থাকে। ফলে, এগুলোর কারণে আমাদের শখের মোবাইল অনেক সময় হ্যাং করে এবং ঠিকভাবে কাজ করতে চায়না।

ফলাফল, আমাদের মোবাইল অনেক স্লো হয়ে যায়। মোবাইল দিয়ে যেকোনো কাজ করতে চাইলে অনেক সময় লাগে। বিভিন্ন অ্যাপস ওপেন করতে গেলে অনেক সময় লাগে। মোবাইল স্লো হলে মোবাইল ফাস্ট করার উপায় জানতে হবে।

মোবাইল ফাস্ট করার উপায়

মোবাইল ফাস্ট করার জন্য আমরা কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারি। শুধুমাত্র একটি কাজ করে আমাদের হাতের মোবাইল ফাস্ট করা যাবেনা। প্রথমে আমাদেরকে খুঁজে বের করতে হবে আমাদের ফোনটি স্লো কাজ করছে কেন। যদি খুঁজে বের করা সম্ভব হয়, তাহলে সেটি করে আমরা সহজেই মোবাইল ফাস্ট করে ফেলতে পারবো।

যদি, খুঁজে বের করা সম্ভব না হয়, তাহলে সম্ভাব্য সকল পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। তাহলে আমরা আমাদের মোবাইলটি ফাস্ট করতে পারবো। তো চলুন, মোবাইল ফাস্ট করার উপায় সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপলিকেশন ডিলেট করুন

মোবাইল ফাস্ট করার উপায়, মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি,

কোনো এক সময় যেকোনো একটি কাজের জন্য একটি অ্যাপ ইনস্টল করেছিলেন, কিন্তু কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর আর সেই অ্যাপটি ব্যবহার করা হয়নি। এভাবে অনেকদিন যাবত অ্যাপটি আপনার ফোনে ইনস্টল হয়ে আছে। অ্যাপটি আপনার ফোনের স্টোরেজ এবং র‍্যাম দখল করে আছে।

এই ধরনের এক বা একের অধিক অ্যাপ থাকতে পারে, যেগুলো আপনি সচরাচর ব্যবহার করেন না। এই ধরনের অ্যাপগুলো খুঁজে বের করুন। এরপর, অ্যাপগুলো আন-ইনস্টল করে ফেলুন। এভাবে করে যতগুলো অব্যবহৃত অ্যাপ আছে, সবগুলো ডিলেট করে ফেলুন। এতে করে ফোনের স্টোরেজ ফাঁকা হবে এবং র‍্যাম অনেক ফাঁকা হবে।

ফোনের অপ্রয়োজনীয় ফাইল ডিলেট করুন

ফোনে অনেক সময় আমরা বিভিন্ন ফাইল ডাউনলোড করে রেখে দেই। কিন্তু, কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও এগুলো ডিলেট করিনা। এভাবে অনেক ফাইল আমাদের ফোনে বছরের পর বছর থেকে যায়, যা আমরা ওইভাবেই রেখে দিয়েছি। এসব ফাইল আমাদের ফোনের স্টোরেজ অনেকাংশে দখল করে থাকে।

এজন্য ফোনে স্টোরেজ কমে যায়। ফোনের স্টোরেজ কমে যাওয়ার কারণে ফোন অনেক স্লো হয়ে যায়। আপনার ফোন হ্যাং করলে, ফোন স্লো হয়ে গেলে, ফোন ফাস্ট করতে চাইলে অবশ্যই অপ্রয়োজনীয় ফাইলগুলো ডিলেট করুন।

ক্যাশ ডাটা ক্লিয়ার করুন

ফোনের ক্যাশ ডাটা ক্লিয়ার করলে ফোনের স্টোরেজ অনেকাংশে ফাঁকা হয়, ফোনের র‍্যাম ক্লিন হয়। তাই, বিভিন্ন র‍্যাম ক্লিনার এবং ক্যাশ ক্লিনার অ্যাপ ব্যবহার করে নিয়মিত আপনার ফোনের ক্যাশ ডাটা ক্লিয়ার করবেন। অ্যাপ ব্যবহার করার কারণে আমাদের ফোনে এসব ক্যাশ ডাটা জমা হয়।

ফোন স্লো হয়ে গেলে বা হ্যাং করলে ফোনের ক্যাশ ডাটাগুলো ক্লিয়ার করে দেখুন ফোন ফাস্ট হয়ে যাবে। এছাড়া, ফোনের র‍্যাম কম হলে এবং প্রসেসর কম শক্তিশালী হলে একসাথে অনেকগুলো অ্যাপ দিয়ে মাল্টিটাস্কিং না করাই উত্তম। একারণেও অনেক সময় ফোন স্লো হয়ে যায় এবং হ্যাং করা শুরু করে।

হাইবারনেটর অ্যাপ ব্যবহার করুন

আমরা মোবাইল ফোন চালানোর সময় বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ ব্যবহার করি। এসব অ্যাপ ক্লোজ করে দিলেও অনেক সময় কিছু অ্যাপ আমাদের ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান থাকে। ফলে আমাদের ফোন হ্যাং করে এবং অনেক স্লো হয়ে যায়। যাদের ফোনের র‍্যাম কম এবং প্রসেসর কম শক্তিশালী, তাদের ফোনে এই সমস্যা বেশিরভাগ সময় দেখা যায়।

তাই, আপনার ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে কোনো অ্যাপস চলমান আছে কিনা এবং এগুলোকে বন্ধ করার জন্য একটি অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে। অ্যাপটি গুগল প্লে ষ্টোরে পেয়ে যাবেন। Hibernator লিখে গুগলে সার্চ করতে হবে। এটি ছাড়াও একই ধরনের আরও অনেক অ্যাপ আছে। যেমন — Kill Apps, Greenify ইত্যাদি। এসব অ্যাপ ব্যবহার করে সকল পারমিশন দিয়ে সহজেই ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান সকল অ্যাপ ফোর্স স্টপ করা যায়।

ফোনের সিস্টেম আপডেট করুন

মোবাইল ফাস্ট করার উপায়, মোবাইল স্লো হওয়ার কারণ কি,

মোবাইল ফোন কেনার পর প্রায় কয়েক বছর যাবত সিস্টেম আপডেট পাওয়া যায়। অনেকেই এসব সিস্টেম আপডেট দেন না। তাই, নতুন ফিচার এবং পূর্বের বাগ ফিক্স করা হলেও সেসব আপডেট অনেকেই পান না। ফলে, ফোন যদি কোনো বাগ এর কারণে স্লো কাজ করে, তবে তা আপডেট দিলে ঠিক হয়ে যেতো। কিন্তু, আপডেট না দেয়ার কারণে অনেকের ফোন স্লো থেকে যায়।

তাই, ফোনের সিস্টেম আপডেট এসেছি কিনা চেক করতে হবে। সিস্টেম আপডেট আসলে সিস্টেম আপডেট করতে হবে। আপডেট করলে ফোনের অ্যান্ড্রোএড ভার্সন আপগ্রেড হয়, ফোনে নতুন ফিচার যুক্ত হয়, পূর্বের বাগ ফিক্স হয়। তাই, আপনার ফোনে সিস্টেম আপডেট এসেছে কিনা চেক করবেন এবং আপডেট আসলে অবশ্যই আপডেট দিবেন।

ফোনের অ্যাপগুলো আপডেট করুন

মোবাইল ফোনে আমরা বিভিন্ন প্রয়োজনীয় অ্যাপ ব্যবহার করি। অ্যাপগুলো প্রায় প্রতিনিয়ত আপডেট দিয়ে থাকে অ্যাপ তৈরিকারক ডেভেলপার কোম্পানি। তাই, আপনার ফোন যেন স্লো হয়ে না যা, এজন্য অ্যাপগুলো আপডেট করে নিবেন। অ্যাপ আপডেট করে নিলে অ্যাপগুলো অনেক ফাস্ট কাজ করে। 

ফলে, ফোন পূর্বের তুলনায় স্লো কম হয়, ল্যাগ কম করে এবং ফোন অনেক ফাস্ট হয়। গুগল প্লে ষ্টোর বা অ্যাপ ষ্টোর থেকে নিয়মিত আপনার ফোনের অ্যাপগুলো আপডেট এসেছে কিনা চেক করবেন এবং আপডেট আসলে আপডেট করে নিবেন। 

মোবাইল স্লো কাজ করে কিভাবে সমাধান করব

মোবাইল স্লো কাজ করলে মোবাইল ফোন ফাস্ট করার উপায়গুলো অনুসরণ করুন। উপরে ইতোমধ্যে মোবাইল ফোন স্লো হলে করণীয় কী তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। মোবাইলে থাকা অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ, ফাইল এবং ক্যাশ ক্লিয়ার করুন। 

📌 আরো পড়ুন 👇

এছাড়াও, ফোনের সিস্টেম এবং অ্যাপগুলো আপডেট রাখুন। বিভিন্ন হাইবারনেটর অ্যাপ ব্যবহার করে ব্যাকগ্রাউন্ডে চলা অ্যাপগুলো ফোর্স স্টপ করে দিন। এভাবে করে স্লো মোবাইল ফাস্ট করতে পারবেন। 

মোবাইল ফাস্ট করার উপায় সম্পর্কে আমাদের মতামত 

আজকের এই ব্লগে আপনাদের সাথে মোবাইল ফোন ফাস্ট করার উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়লে মোবাইল ফোন স্লো হয়ে গেলে করণীয় কী, মোবাইল ফোন স্লো হয় কেন এবং মোবাইল ফাস্ট করার উপায় সম্পর্কে জানতে পারবেন। 

প্রতিদিন ব্যবহার করতে হয় এমন একটি মোবাইল ফোন যদি স্লো কাজ করে, তাহলে অনেক কাজের ব্যাঘাত ঘটে। আপনার মোবাইলটি স্লো হয়ে গেলে উপরোক্ত ধাপগুলো অনুসরণ করুন। এতে করে, ফোন স্লো বা হ্যাং করলে আপনার ফোনটি ফাস্ট করে নিতে পারবেন। 

মোবাইল ফাস্ট করার উপায় সম্পর্কে যদি কোন প্রশ্ন থেকে থাকে, তাহলে কমেন্ট করুন। আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবো। এতক্ষন ডিয়ার টেক ব্লগের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।


পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Comment